২৫ নভেম্বর ২০২০ ১১:৪০ পূর্বাহ্ন     |    ই-পেপার     |     English
২৫ নভেম্বর ২০২০   |  ই-পেপার   |   English
রেজিষ্ট্রারী মাঠে হেফাজতের সমাবেশ লোকে লোকারণ্য
রেজিষ্ট্রারী মাঠে হেফাজতের সমাবেশ লোকে লোকারণ্য

জৈন্তা বার্তা ডেস্ক

নভেম্বর ২১, ২০২০ ০৫:০৮ পিএম

নবীপ্রেমে উদ্বুদ্ধ সকল আলেম উলামা ও সর্বস্তরের ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের উপস্থিতে লোকে লোকারণ্য  সিলেটের রেজিষ্ট্রি মাঠ। হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের উদ্যোগে আয়োজিত এ সমাবেশ আজ শনিবার বেলা দু’টায় ২টা থেকে শুরু হয়। সমাবেশের প্রধান অতিথি হেফাজতের আমীর আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরীসহ কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ এসে সমাবেশ স্থলে অবস্থান করছেন।

সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত আছেন হেফাজতের আমীর আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত আছেন হেফাজতের মহাসচিব আল্লামা নুর হোসাইন কাসেমী, কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা আল্লামা উবায়দুল্লাহ ফারুক, নায়েবে আমীর আল্লামা নূরুল ইসলাম জিহাদী, প্রফেসর ড. আহমদ আব্দুল কাদেরসহ কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ।

সরেজমিনে রেজিষ্ট্রি মাঠ ও আশপাশ এলাকা ঘুরে দেখা যায়, দুপুর ১২টা থেকে সিলেটের বিভিন্ন উপজেলা থেকে হেফাজতের নেতাকর্মীরা মিছিল নিয়ে রেজিষ্ট্রি মাঠের দিকে আসতে থাকেন। এক পর্যায়ে রেজিষ্ট্রি মাঠ উপচে পড়ে তালতলা, ক্বীন ব্রীজের মুখ থেকে সিটি পয়েন্ট পর্যন্ত সমাবেশ বিস্তৃত হয়।

তবে সমাবেশ শুরুর অনেক আগে থেকেই হেফাজতে ইসলামের নেতাকর্মীরা সমাবেশস্থলে আসতে শুরু করেন। জোহরের নামাজের পর বাড়তে থাকে নেতাকর্মীদের ঢল।

সমাবেশ শুরুর আগেই ভরে যায় রেজিস্ট্রারি মাঠ। পরে হেফাজতে ইসলামের নেতাকর্মীরা রেজিস্ট্রারি মাঠের সামনের সড়কে অবস্থান নেন। তাদের অবস্থানের ফলে সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এর ফলে নগরীতে অন্য সড়কে চাপ বাড়ে, তৈরি হয় দীর্ঘ যানজট।

এদিকে, সমাবেশে যোগ দিতে দুপুরে সিলেটে আসেন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের নবনির্বাচিত আমির আল্লামা জুনায়েদ বাবু নগরী ও মহাসচিব আল্লামা নুর হোসেন ক্বাসেমী। এছাড়া হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের উপদেষ্টা মাওলানা ওবায়দুল্লাহ ফারুক, মাওলানা রশীদুর রহমান ফারুক পীর সাহেব বরুনা, কেন্দ্রীয় নায়েবে আমির মাওলানা নুরুল ইসলাম জিহাদী, নায়েবে আমির মাওলানা নরুল ইসলাম খান, অধ্যাপক আহমদ আব্দুল কাদের, যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হক, সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল হক ইসলামাবাদী বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন।

সমাবেশকে ঘিরে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করে সিলেট মহানগর পুলিশ। পোশাকধারী পুলিশের পাশাপাশি সাদাপোশাকের বিপুল সংখ্য সদস্যও সমাবেশস্থল ও আশপাশে কাজ করেছেন।

ই/ডি