২০ জানুয়ারী ২০২১ ০৮:৩৮ অপরাহ্ন     |    ই-পেপার     |     English
২০ জানুয়ারী ২০২১   |  ই-পেপার   |   English
অভিশংসনের প্রচেষ্টা ভিন্ন মতালম্বীদের হযরানির বাজে প্রচেষ্টা: ট্রাম্প
অভিশংসনের প্রচেষ্টা ভিন্ন মতালম্বীদের হযরানির বাজে প্রচেষ্টা: ট্রাম্প

জৈন্তা বার্তা ডেস্ক

জানুয়ারী ১৩, ২০২১ ০৩:০৩ পিএম

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে অভিশংসনের প্রস্তাব নিয়ে বুধবার দেশটির পার্লামেন্টে ভোটাভুটি হওয়ার কথা রয়েছে। তবে মেয়াদের শেষ সময়ে তাকে অভিশংসনের জন্য ডেমোক্র্যাট শিবিরের প্রচেষ্টাকে পুরোপুরি হাস্যকর বলে মন্তব্য করেছেন ট্রাম্প। মঙ্গলবার ওয়াশিংটনে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এমন মন্তব্য করেন তিনি। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সংবাদমাধ্যম ভয়েস অব আমেরিকা। গত বুধবার যুক্তরাষ্ট্রের পার্লামেন্ট ভবন ইউএস ক্যাপিটলে ট্রাম্প সমর্থকদের নজিরবিহীন তাণ্ডবের পর মঙ্গলবার প্রথমবারের মতো সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন ট্রাম্প। সেদিনের ঘটনায় পাঁচ জন নিহত হয়। আহত হয় আরও অনেকে। তবে ওই তাণ্ডবের দায় নিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন তিনি। সেদিন হোয়াইট হাউজের কাছে এক সমাবেশে নিজের হাজার হাজার সমর্থকের উদ্দেশে ভাষণ দেন ট্রাম্প। এ সময় তিনি নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট হিসেবে বাইডেনকে প্রত্যয়নকারীদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের আহ্বান জানান। ওই সমাবেশ থেকেই পরে ক্যাপিটল ভবনে গিয়ে তাণ্ডব চালায় তার উগ্র সমর্থকরা। তবে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প দাবি করেন, তার সেদিনের বক্তব্য বিশ্লেষণ করে দেখা হয়েছে। তার ভাষায়, ‘জনগণ মনে করছে, আমি যা বলেছি তা ছিল সম্পূর্ণ সঠিক।’ মঙ্গলবার সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তাকে অভিশংসনের প্রচেষ্টাকে ‘রাজনীতির ইতিহাসে, ভিন্ন মতাবলম্বীদের হয়রানি করার সবচেয়ে বাজে প্রচেষ্টা’ হিসেবে আখ্যায়িত করেন। ২০১৯ সালের অভিশংসন প্রচেষ্টার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘এটি অব্যাহতভাবেই চলে আসছে।’ ট্রাম্প বলেন, বাইডেন যখন দায়িত্ব নিচ্ছেন তখন তিনি আর কোনও সহিংসতা চান না। তবে ডেমোক্র্যাট নিয়ন্ত্রিত প্রতিনিধি পরিষদের অভিশংসন প্রস্তাব তাকে প্রচণ্ড ক্ষুব্ধ করেছে। প্রতিনিধি পরিষদের রুলস কমিটির চেয়ারপার্সন জিম ম্যাকগভের্ন বলেছেন, বুধবার ট্রাম্পের অভিশংসন প্রস্তাব নিয়ে ভোটাভুটি হতে পারে। প্রতিনিধি পরিষদের ওই ভোটাভুটিতে প্রস্তাবটি পাস হবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন তিনি। যুক্তরাষ্ট্রের পার্লামেন্ট ভবন ইউএস ক্যাপিটলে গত সপ্তাহেই ভয়াবহ ওই তাণ্ডব চালায় ট্রাম্প সমর্থকরা। মার্কিন গণতন্ত্রের প্রতীক হিসেবে পরিচিত ভবনটির ভেতরে যেভাবে এ সহিংসতা চালানো হয়েছে সেটি ছিল নজিরবিহীন। এ সহিংসতায় উসকানি দেওয়ার অভিযোগেই ট্রাম্পকে অভিশংসনের দাবি উঠে। এমন পরিস্থিতিতেই অভিশংসন প্রস্তাব উত্থাপনের প্রস্তুতি নিয়েছে ডেমোক্র্যাটরা। সোমবার ডেমোক্র্যাটিক রিপ্রেজেন্টেটিভ জিম ম্যাকগভের্ন বলেন, ‘প্রেসিডেন্ট বিবেকবর্জিত কাজ করেছেন। এর জন্য তাকে দায়ী করতে হবে। আমরা ব্যবস্থা নিচ্ছি কিনা সেটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। আমরা খুব গুরুত্ব সহকারে এবং সুচিন্তিত উপায়ে কাজ করছি কিনা তা জরুরি। আশা করছি বুধবার প্রতিনিধি পরিষদই এর সুরাহা করবে। আমার প্রত্যাশা প্রস্তাবটি পাস হবে।’ অভিশংসন প্রস্তাবে ইচ্ছাকৃতভাবে সরকারের বিরুদ্ধে সহিংসতায় উসকানি দেওয়ার মধ্য দিয়ে উচ্চ পর্যায়ের অপরাধ সংঘটনের অভিযোগ আনা হয়েছে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে। আইনপ্রণেতাদের যুক্তি, ট্রাম্প যেভাবে নির্বাচনকে খর্ব করেছেন এবং ৬ জানুয়ারি ক্যাপিটলে হামলার দিন সমর্থকদের যেভাবে নির্দেশনা দিয়েছেন তার মধ্য দিয়ে ‘তিনি প্রেসিডেন্ট হিসেবে তার দায়িত্বের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা’ করেছেন। এমন পরিস্থিতিতে সোমবার ট্রাম্পের সঙ্গে বৈঠকে মিলিত হন ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স। ট্রাম্পকে সরিয়ে দিতে সাংবিধানিক ক্ষমতা প্রয়োগের জন্য ডেমোক্র্যাট শিবিরের চাপ প্রত্যাখ্যানেরও ঘোষণা দেন তিনি।