মে / ১৬ / ২০২২ ১০:২৫ অপরাহ্ন

জকিগঞ্জ প্রতিনিধি

জানুয়ারী / ১৭ / ২০২২
০৫:৩২ অপরাহ্ন

আপডেট : মে / ১৬ / ২০২২
১০:২৫ অপরাহ্ন

জকিগঞ্জের সেই দুই রিটার্নিং কর্মকর্তাকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ


ফাইল ছবি

64

Shares

পঞ্চম ধাপের ইউপি নির্বাচনের দিন সিলেটের জকিগঞ্জে সিল দেওয়া ব্যালট পেপার, মুড়ি, নগদ টাকা, ফেন্সিডিলের খালি বোতলসহ গ্রেফতারকৃত দুই রিটার্নিং কর্মকর্তাকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

সোমবার জকিগঞ্জ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট চৌকি আদালতে পুলিশের চাওয়া ৫দিনের রিমান্ড শুনানি শেষে বিজ্ঞ বিচারক শ্যাম কান্ত সিনহা দুপুর ১২টা ৪৫মিনিটের দিকে তাদেরকে দুইদিন জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ দেন।

তারা হলেন- উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা শাদমান সাকীব ও উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আরিফুল হক।

রিমান্ড শুনানিতে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন সিএসআই নুর হোসেন ও আসামী পক্ষে শুনানি করেন এডভোকেট মোয়াজ্জেম হোসেন এবং এডভোকেট কাওসার রশিদ বাহার।

শুনানি শেষে গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা জকিগঞ্জ থানার ওসি তদন্ত সুমন চন্দ্র সরকার।

অন্যদিকে দুই রির্টানিং কর্মকর্তাকে আদালতে হাজির করার খবরে সোমবার সকাল থেকে আদালত প্রাঙ্গণে এসে জড়ো হয়ে বিক্ষোভ করেন ইউপি নির্বাচনের প্রায় অর্ধশত প্রার্থী। বিক্ষোভে বিক্ষুব্ধ প্রার্থী ও সাধারণ মানুষ শাদমান সাকীব ও আরিফুল হকের শাস্তি চেয়ে নানা শ্লোগান দিয়ে পুণনির্বাচনের দাবি জানান।

প্রসঙ্গত, গত ৫ জানুয়ারী পঞ্চম ধাপের ইউপি ভোটের দিন বিকেল ৩টা ৪০ মিনিটের সময় জকিগঞ্জের মরিচা ভোট কেন্দ্রের সামনে থেকে চেয়ারম্যান ও সদস্য প্রার্থীর সিল দেয়া ও খালি ব্যালট পেপার মোট ১২শ, মুড়ি বই ৮টি, ব্যালেট বাক্সের সিলগালা লক ৮টি, নগদ টাকা ১ লাখ সাড়ে ২১ হাজার, ফেন্সিডিলের খালি বোতল, কালো রঙের ঢাকা মেট্রো-ঠ ১৩-৭০২৮ গাড়ীসহ হাতেনাতে সিলেটের জেলা প্রশাসক (ডিসি) এম কাজী এমদাদুল ইসলাম, পুলিশ সুপার (এসপি) ফরিদ উদ্দিন পিপিএম ও জেলা সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তা মো. শুক্কুর মাহমুদ মিয়ার হাতে ধরা পড়েন রির্টানিং কর্মকর্তা শাদমান সাকীব ও আরিফুল হক। তাৎক্ষণিক কাজলসার ইউপি ভোট গ্রহণ স্থগিত করা হয়। সুলতানপুর ইউপির গণিপুর ভোটকেন্দ্রেও সীল মারা ব্যালেট পেপার বাক্সে ভরার ঘটনায় উত্তেজিত ভোটাররা ঐ কেন্দ্রের ব্যালেট বাক্স ছিনিয়ে নিয়ে পুকুরে ফেলে দিলে গণিপুর কেন্দ্রের ভোটগ্রহণও স্থগিত করা হয়।

এ ঘটনায় দুই রির্টানিং কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মরিচা ভোট কেন্দ্রের ইনচার্জ জৈন্তা থানার এ এসআই আব্দুল হাকিম বাদী হয়ে স্থানীয় সরকার আইনে জকিগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেন। গ্রেফতারকৃত শাদমান সাকীব (৩২) উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও আরিফুল হক (৩৬) উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা। নির্বাচনে তারা দুজন রির্টানিং কর্মকর্তার দায়িত্বে ছিলেন। ৬ জানুয়ারী রির্টানিং কর্মকর্তা শাদমান সাকীবকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়। তবে রির্টানিং কর্মকর্তা আরিফুল হক থানা হাজতে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে চিকিৎসার জন্য সিলেট এমএজি ওসমানী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। 

জকিগঞ্জ প্রতিনিধি

জানুয়ারী / ১৭ / ২০২২
০৫:৩২ অপরাহ্ন

আপডেট : মে / ১৬ / ২০২২
১০:২৫ অপরাহ্ন

অপরাধ