অগাস্ট / ১৪ / ২০২২ ০৭:১৮ অপরাহ্ন

জৈন্তা বার্তা ডেস্ক

জুলাই / ২৯ / ২০২২
০৯:৩৭ পূর্বাহ্ন

আপডেট : অগাস্ট / ১৪ / ২০২২
০৭:১৮ অপরাহ্ন

জুমার পূর্বে চার রাকাত সুন্নত যে কারণে পড়া জরুরি



69

Shares

জুমার ২ রাকাত ফরজ নামাজের আগে 'চার রাকাত' সুন্নাতে মুআক্কাদা নামাজ পড়া সহীহ হাদিস দ্বারা প্রমাণিত৷ রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এবং সাহাবায়ে কেরামের কথা ও আমল দ্বারা সু সাব্যস্ত ৷ 

জুমাপূর্ব চার রাকাত সুন্নাত নামাজ সহীহ হাদিস দ্বারা প্রমাণিত এবং সুন্নাহসম্মত এটাই অগ্রগণ্য মত৷ রাকাত সংখ্যা কত বা কেমন সুন্নাত; মুআক্কাদা নাকি মুআক্কাদা নয়, সেটা নিয়ে উলামায়ে কেরামের মাঝে মৃদু দ্বিমত থাকলেও জুমার পূর্বে  যে নামাজ আছে, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ও সাহাবায়ে কেরামগন পড়তেন, এতে কোনো দ্বিমত নেই। অধিকাংশ উলামায়ে কেরামের মত হচ্ছে, জুমার পূর্বের নামাজ সুন্নাতে রাতেবা (মুআক্কাদা)৷ (ফতহুল বারী শরহুল বুখারী, ইবনু রজব: ৮/৩৩৩) তাছাড়া সাহাবায়ে কেরামের এর প্রতি নিয়মিত আমলও মুআক্কাদা হওয়ারই প্রমাণ বহন করে৷

আযান ও ইকামতের মধ্যবর্তী সময়ে সুন্নাত নামাজ পড়ার বিষয়টি তো বুখারী-মুসলিমসহ প্রায় সবগুলো কিতাবের সহীহ হাদিস দ্বারা প্রমাণিত৷

হাদিস শরীফে এসেছে- দুই আযানের (আযান ও ইকামতের) মধ্যবর্তী সময়ে নামাজ রয়েছে৷ (বুখারী হাদিস নং-৬২৭ মুসলিম হাদিস নং-৮৩৮)

আবু হুরায়রা রা: থেকে বর্ণিত রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ইরশাদ করেন-

যে ব্যক্তি গোসল করে, এরপর জুমায় আসে, এরপর তাওফীক মতো নামাজ পড়ে, এরপর চুপ থাকে ইমামের খুতবা সমাপ্ত করা পর্যন্ত, এরপর তার সাথে নামাজ পড়ে, পরবর্তী জুমা পর্যন্ত ও আরো তিন দিনের (গুনাহ) মাফ করে দেওয়া হয়। (সহীহ মুসলিম হাদিস নং- ৮৫৭)

হজরত আলী রা. থেকে বর্ণিত-

 রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম জুমার পূর্বে চার রাকাত এবং পরে চার রাকাত নামাজ এক সালামে আদায় করতেন৷ (তাবারানী: ২/১৭২)

মতবিরোধ হয়েছে যে, জুমার পূর্বে যে নামাজ আদায় করা হয়, তা সুন্নাতে রাতেবা (মুআক্কাদা) নাকি মুস্তাহাব যার প্রতি উৎসাহ প্রদান করা হয়েছে৷ অধিকাংশ উলামায়ে কেরামের মত হচ্ছে, জুমার পূর্বের নামাজ সুন্নাতে রাতেবা (মুআক্কাদা)৷ (ফতহুল বারী শরহুল বুখারী, ইবনু রজব: ৮/৩৩৩)

আল্লামা শাওকানী রা. জুমাপূর্ব সুন্নাত নামাজ পড়ার সমর্থনে দুটি হাদিস উল্লেখপূর্বক তার মতামত ব্যক্ত করেছেন এভাবে-

والحديثان يدلان علي مشروعية الصلاة قبل الجمعة… والحاصل أن الصلاة قبل الجمعة مرغب فيها عموما وخصوصا.

অর্থাৎ- বর্ণিত দুটি হাদিস জুমার পূর্বে সুন্নাত নামাজ শরীয়তসিদ্ধ হওয়ার প্রমাণ বহন করে…৷ সুতরাং জুমার পূর্বে নামাজ পড়ার বিষয়ে শরীয়তে সর্বোতভাবে উৎসাহিত করা হয়েছে৷ (নাইলুল আওতার: ৩/৩০৩)

উপরোক্ত দালিলিক আলোচনা থেকে বোঝা গেলো কাবলাল জুমা তথা জুমাপূর্ব চার রাকাত সুন্নাত নামাজ সহীহ হাদিস ও সাহাবায়ে কেরামের আমল দ্বারা প্রমাণিত৷ 

জৈন্তা বার্তা ডেস্ক

জুলাই / ২৯ / ২০২২
০৯:৩৭ পূর্বাহ্ন

আপডেট : অগাস্ট / ১৪ / ২০২২
০৭:১৮ অপরাহ্ন

ইসলাম ও জীবন