ডিসেম্বর / ০৮ / ২০২১ ০৩:৪৮ পূর্বাহ্ন

জৈন্তা বার্তা ডেস্ক

নভেম্বর / ২৪ / ২০২১
১২:৫১ পূর্বাহ্ন

আপডেট : ডিসেম্বর / ০৮ / ২০২১
০৩:৪৮ পূর্বাহ্ন

খেলাপি ঋণ ১ লাখ কোটি টাকা ছাড়িয়েছে



51

Shares

চলতি বছরের তৃতীয় প্রান্তিকে এসে ব্যাংকিং খাতের খেলাপি ঋণ ফের এক লাখ কোটি টাকা ছাড়িয়েছে। গত সেপ্টেম্বর শেষে খেলাপি ঋণের পরিমাণ বেড়ে ১ লাখ ১৬৮ কোটি টাকায় উঠেছে। যা গত বছর একই সময়ে ছিল ৯৪ হাজার ৪৪০ কোটি টাকা।

মঙ্গলবার বাংলাদেশ ব্যাংকের খেলাপি ঋণ সংক্রান্ত সেপ্টেম্বর প্রান্তিকের হালনাগাদ প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সর্বশেষ হালনাগাদ প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চলতি বছরের সেপ্টেম্বর মাস শেষে ব্যাংকিং খাতের মোট ঋণ স্থিতি দাঁড়িয়েছে ১২ লাখ ৪৫ হাজার ৩৯১ কোটি ৫৮ লাখ টাকা। এর মধ্যে এক লাখ এক হাজার ১৫০ কোটি টাকা খেলাপিতে পরিণত হয়েছে, যা মোট ঋণের ৮ দশমিক ১২ শতাংশ। করোনার শুরুর বছর ২০২০-এর ডিসেম্বরে খেলাপি ঋণ ছিল ৮৮ হাজার ৭৩৪ কোটি টাকা, যা মোট ঋণের ৭ দশমিক ৬৬ শতাংশ। সে হিসেবে চলতি বছরের প্রথম ৯ মাসে খেলাপি ঋণ বেড়েছে ১২ হাজার ৪১৬ কোটি টাকা।

করোনায় অর্থনৈতিক প্রভাব মোকাবিলায় গত বছর ঋণ গ্রহীতারা কোনো টাকা পরিশোধ না করলেও তাকে খেলাপি দেখাতে পারেনি ব্যাংক। বাংলাদেশ ব্যাংক আগামী ডিসেম্বর পর্যন্ত ঋণ পরিশোধে একরকম ছাড় দিয়ে রেখেছে। এই ছাড়ের কারণে চলতি বছর একজন গ্রাহকের যে পরিমাণ ঋণ পরিশোধ করার কথা, আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে তার ২৫ শতাংশ পরিশোধ করলেও তাকে আর খেলাপি করা যাবে না। এমন ছাড়ের পরেও খেলাপি ঋণ দিন থেকে দিনে বেড়েই চলেছে।

ব্যাংকাররা বলছেন, দেশে নথিপত্রে খেলাপি ঋণ যত দেখানো হয়, প্রকৃত চিত্র তার চেয়ে তিন গুণ বেশি।  আইএমএফের মতে, বাংলাদেশে খেলাপি ঋণের পরিমাণ হবে প্রায় আড়াই লাখ কোটি টাকা।

জৈন্তা বার্তা ডেস্ক

নভেম্বর / ২৪ / ২০২১
১২:৫১ পূর্বাহ্ন

আপডেট : ডিসেম্বর / ০৮ / ২০২১
০৩:৪৮ পূর্বাহ্ন

অর্থনীতি