মে / ১৬ / ২০২২ ১০:৩১ অপরাহ্ন

অমিত ধর, কমলগঞ্জ

মে / ১১ / ২০২২
০৫:০৪ অপরাহ্ন

আপডেট : মে / ১৬ / ২০২২
১০:৩১ অপরাহ্ন

কমলগঞ্জে ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা



27

Shares

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয়েছে। এছাড়াও পৌর ও কলেজ ছাত্রলীগের কমিটিও বিলুপ্ত করা হয়েছে।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় মৌলভীবাজার জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আমীরুল হোসেন চৌধুরী (আমিন) ও সাধারণ সম্পাদক মাহবুব আলম স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কমিটি বিলুপ্ত করেন। পাশাপাশি নতুন কমিটির জন্য জীবনবৃত্তান্ত আহ্বান করা হয়েছে। একই সঙ্গে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদপ্রত্যাশীদের আগামী ২১ মে সকাল সাড়ে ১০টা থেকে দুপুর আড়াইটার মধ্যে জেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে জেলা কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের কাছে জীবনবৃত্তান্ত জমা দিতে বলা হয়েছে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে।

কমিটি বিলুপ্তির বিষয়ে জেলা ছাত্রলীগের দায়িত্বশীল এক নেতা বলেন, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মো. আসাদুজ্জামান রনি ও সাধারণ সম্পাদক সাইফুর রহমান রনির ঘোষিত কমলগঞ্জ উপজেলা, পৌর ও কলেজ ছাত্রলীগের কমিটি মেয়াদোত্তীর্ণ হওয়ায় বিলুপ্ত করা হয়েছে। তবে কমলগঞ্জ উপজেলা, পৌর ও কলেজ ছাত্রলীগের কমিটি দীর্ঘদিনেও কেন অনুমোদন করা হয়নি, সে বিষয়ে ওই নেতা কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি। তবে তৃণমূলে গুঞ্জন- বিলুপ্ত কমিটির নেতারা কর্মীবান্ধব ছিলেন। তারা নেতা তোষামোদ করেননি বলেই তাদের কমিটি অনুমোদন না করেই মেয়াদোত্তীর্ণের অভিযোগ তুলে বিলুপ্ত করা হয়েছে।

ছাত্রলীগ সূত্রে জানা গেছে, দীর্ঘ এক যুগ পর ২০১৭ সালের ৫ মার্চ সম্মেলনের মাধ্যমে রাহাত ইমতিয়াজ রিপুলকে সভাপতি ও মো. শাকের আলী সজীবকে সাধারণ সম্পাদক করে কমলগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের ১৭ সদস্যের নাম ঘোষণা করা হয়। মৌলভীবাজার জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. আসাদুজ্জামান রনি ও সাধারণ সম্পাদক সাইফুর রহমান রনি স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এক বছরের জন্য এ কমিটি ঘোষণা করা হয়।

একই দিনে আব্দুল হাকিমকে সভাপতি ও হাসান আহমেদকে সাধারণ সম্পাদক করে ২ সদস্যের কমলগঞ্জ কলেজ ছাত্রলীগ এবং মিনহাজ নাসিরকে সভাপতি ও রিংকু মল্লিককে সাধারণ সম্পাদক করে ২ সদস্যের কমলগঞ্জ পৌর ছাত্রলীগের কমিটি ঘোষণা করা হয়। এরপর কেটে গেছে ৫ বছর। এ সময়ের মধ্যে কমলগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগ ৩ বার পূর্ণাঙ্গ কমিটি জমা দিলেও রহস্যজনক কারণে সেই কমিটি অনুমোদন হয়নি। 

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় কমলগঞ্জ উপজেলা, পৌর ও কলেজ ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত করার পর প্রকাশ্যে কেউ কোনো মন্তব্য করার সাহস দেখাননি। তবে ভেতরে ভেতরে ক্ষোভ প্রকাশ করতে দেখা যায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের বিভিন্ন  স্ট্যাটাসে।  

কমলগঞ্জ কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক এক নেতা লিখেছেন, সিভি জমার রাজনীতি প্রাণের সংগঠনের গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাস ধ্বংস করছে। এ প্রথার কারণে ত্যাগীরা অবমূল্যায়িত হচ্ছেন। ছাত্রলীগের রাজনীতি না করে তারা নেতৃতৃে বসছেন। এর ফলে উচ্চফলনশীল এ হাইব্রিড নেতাদের কর্মীরা ঠিক মতো মানে না। কর্মীরা দলের কাজ ঠিকমতো না করায় নেতার সাথে কর্মীর দূরত্ব বাড়ছে। এতে সাংগঠনিক কার্যক্রম ভেঙ্গে পড়ছে। সংগঠনের স্বার্থে এ প্রক্রিয়া থেকে বেরিয়ে আসার আহ্বান জানান তিনি।

অমিত ধর, কমলগঞ্জ

মে / ১১ / ২০২২
০৫:০৪ অপরাহ্ন

আপডেট : মে / ১৬ / ২০২২
১০:৩১ অপরাহ্ন

মৌলভীবাজার